Get on Google Play

সাধারণ জ্ঞান বিষয়ক বিস্তারিত তথ্য
#7035
সচরাচর একটা সাধারণ হরিণের ওজন হয় ৩০০ পাউন্ড এবং হরিণীর হয় ১২৫ পাউন্ড । সেখানে সম্প্রতি মাত্র ৪ পাউন্ড ওজনের একটি হরিণের দেখা মিলেছে । দেখতে হুবহু ইঁদুরের মতো । তাই এ হরিণকে অনেকেই ভুলবশত ইঁদুর মনে করতে পারেন । এর গায়ের রঙ কমলা এবং খয়েরি । কিন্তু শিং নেই । বিরলতম এই ‘ট্র্যাগুলডে’ প্রজাতির হরিণকে ‘জাভা-মুজ’ হরিণও বলেন অনেকে । সাধারণত দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার এই ধরনের হরিণ খুঁজে পাওয়া যায় । ট্রপিক্যাল অঞ্চলে কিংবা গভীর জঙ্গলে জলের কাছাকাছি এদের দেখা যায় । গণনা করে দেখা গেছে, এই মুহূর্তে ইউরোপে ৪৩টি ‘জাভা-মুজ’ হরিণ রয়েছে । দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার মানুষ কখনও এই হরিণের মাংস খান, আবার পোষ্য হিসেবেও ঘরে রাখেন । এই প্রজাতির হরিণ সর্বোচ্চ ১২ বছর পর্যন্ত বেচেঁ থাকতে পারে ।

বয়স্কতম পাখির ছানা
১ ফেব্রুয়ারি ২০২১ উত্তর প্রশান্ত মাহসাগরীয় মিডওয়ে অ্যাটলেতে বাচ্চা ফুটিয়েছে পৃথিবীর সবচেয়ে বয়স্ক পাখি হিসেবে পরিচিত উইজডম । এটি একটি অ্যালবাট্রস । ১৯৫৬ সালে একজন জীববিজ্ঞানী অ্যালবাট্রসটির নাম দেন উইজডম । পাখিটির বয়স এখন ৭০ বছরের বেশি । তার আগের সঙ্গীর মৃত্যু হওয়ার পর নতুন সঙ্গীর সন্ধান পায় সে । উইটডমের বর্তমান সঙ্গীর নাম এাকিয়াামি । এই সঙ্গীর সাথে ২০১২ সাল থেকেই রয়েছে উইজডম ।
হাওয়াই দ্বীপের কাছে মিডওয়ে অ্যাটল ন্যাশনাল ওয়াইল্ডলাইফ রিফিউজি হচ্ছে বিশ্বের বৃহত্তম অ্যালবাট্রস কলোনি । সামুদ্রিক এই পাখি উড়তে সক্ষম সবচেয়ে আকারের পাখিগুলোর মধ্যে অন্যতম । এই পাখিগুলো বাঁচেও অন্যান্য পাখির তুলনায় বেশি দিন । একটি অ্যালবাট্রস কয়েক বছর পরপর মাত্র একটি করে ডিম পাড়ে । অ্যালবাট্রসের অন্যতম একটি বৈশিষ্ট্য হলো , তারা আজীবনের জন্য একজন সঙ্গীকে বেছে নেয় । তবে প্রয়োজন পড়লে তারা নতুন সঙ্গীও জোটাতে পারে । বেশির ভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় , প্রথম সঙ্গীর মৃত্যুর পরিই দ্বিতীয় সঙ্গীর খোঁজ শুরু করে অ্যালবাট্রস ।
    Similar Topics
    TopicsStatisticsLast post
    0 Replies 
    34 Views
    by rafique

    লজিস্টিক, এডমিন (সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং), এটিসি/ মিটি[…]

    ৯০ BAFA কোর্সে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীতে অফিসার ক্যা[…]

    ১.মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কোন প্রেসিডেন্ট প্রথম আতত[…]

    সর্বশেষ সরকারি বিধি ও বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ([…]