Let's Discuss!

সাধারণ জ্ঞান বিষয়ক বিস্তারিত তথ্য
#2087
ভারতের ব্যর্থ চন্দ্রাভিযান
২২ অক্টোবর ২০০৮ প্রথমবারের মতো ‘চন্দ্রযান-১’ নামের একটি মহাকাশযান চাঁদে পাঠায় ভারত। কিন্তু সেটি চাঁদের মাটিতে অবতরণ করেনি। ২২ জুলাই ২০১৯ অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীহরিকোটার সতীশ ধাওয়ান মহাকাশ স্টেশন থেকে ৬৪০ টন ওজনের রকেটে করে উৎক্ষেপণ করা হয় দেশটির দ্বিতীয় মহাকাশযান ‘চন্দ্রযান-২’। মহাকশে চার সপ্তাহ ভ্রমণ করার পর ২০ আগস্ট ২০১৯ তা পৃথিবীর একমাত্র প্রাকৃতিক উপগ্রহ চাঁদের কক্ষপথে প্রবেশ করে। চাঁদের দক্ষিণ মেরুর উদ্দেশ্যে উৎক্ষেপণ করা হয়েছিল ‘চন্দ্রযান-২। এর ছিল তিনটি অংশ- অরবিটার, ল্যান্ডার ‘বিক্রম’ ও রোভার ‘প্রজ্ঞান’। পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী, ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ চাঁদের মাটিতে অবতরণের কথা ছিল ল্যান্ডার ‘বিক্রমের’। কিন্তু চাঁদে নামতে গিয়ে ভারতের মহাকাশযান ‘চন্দ্রযান-২’ নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। চন্দ্রপৃষ্ঠ থেকে মাত্র ২.১ কিলোমিটার দূরে থাকাবস্থায় একেবারে শেষ মুহূর্তে ল্যান্ডার ‘বিক্রম’ অরবিটারের সাথে সংযোগ হারিয়ে ফেলে। এতে ’চন্দ্রযান-২-এর সাথে ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থার (ইসরো) যোগাযোগা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। আর এর মধ্য দিয়েই ব্যর্থতায় পর্যবসিত হয় ভারতের চন্দ্রাভিযান। একেবারে শেষ মুহূর্তে এসে থেমে যায় ভারতের চন্দ্রাভিযান স্বপ্ন। চাঁদে নিয়ন্ত্রিত অবতরণের মিশন সফল হলে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া ও চীনের পর তালিকার চতুর্থ দেশ হিসেবে নাম লেখা হতো ভারতের।
Similar Topics
Topics Statistics Last post
0 Replies 
744 Views
by rajib
Tue Jun 25, 2019 1:13 pm
0 Replies 
452 Views
by masum
Mon Oct 21, 2019 6:25 am