লিখিত পরীক্ষা বিষয়ক
#2002
সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীকে উচ্ছেদের জন্য প্রচেষ্টাই জাতিগোষ্ঠী নির্মূলকরণ। কোনো নির্দিষ্ট ভৌগোলিক স্থান থেকে সংখ্যালঘুদের অবাঞ্চিত করা, উৎখাত করা ও গণহত্যা চালানোই জাতিগত নির্মূলকরণ। সাবেক যুগোশ্লাভিয়ার বিভেদকে কেন্দ্র করে যুদ্ধের সময় নির্দিষ্ট কিছু জাতিগোষ্ঠীর উপর অবর্ণনীয় অত্যাচার নেমে আসার পর ১৯৯০ এর দশকে “জাতিগোষ্ঠী নির্মূলকরণ” শব্দটি প্রথম ব্যবহার করা হয়।

জাতিগত নির্মূলকরণের কারণ:

ক. কোনো নির্দিষ্ট ভৌগোলিক স্থানকে “জাতিগতভাবে সমজাতীয় ভৌগোলিক এলাকায়” রূপান্তর করা

খ. বর্ণবাদী চেতনা বাস্তবায়ন

গ. উগ্র জাতীয়তাবাদ প্রতিষ্ঠা

ঘ. সংখ্যালঘু গোত্রদের উচ্ছেদ করে রাষ্ট্রকে পবিত্র করার হীন চিন্তা

ঙ. অন্য দেশে শরণার্থী সৃষ্টির হীন প্রচেষ্টা

জাতিগত নির্মূলকরণের নিদর্শন:

ক. ২০১৭ সালে মিয়ানমারের রাখাইনে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী (Tatmadaw) অভিযান চালিয়ে ১১.৫০ লাখ রোহিঙ্গাকে উচ্ছেদ করে।

খ. ২০০৩ সালে সুদানের দারফুরে অনারব মুসলিম গণহত্যা।

গ. ১৯৯৪-৯৫ সালে রুয়ান্ডায় ৩ লক্ষাধিক তুতসিকে দেশ ছাড়া করা।

ঘ. ১৯৯৫ সালে সেব্রনিৎসা গণহত্যা/ বসনিয়ায় ক্রোয়াটসদের হত্যা।

ঙ. ১৯৯২ সালে সার্বদের দ্বারা বসনিয়া হত্যাকাণ্ড

চ. ১৯৩৯ থেকে ১৯৪৫ পর্যন্ত নাৎসী বাহিনী কর্তৃক ইহুদি হত্যাকাণ্ড, যা ‘হলোকস্ট’ নামে পরিচিত।
------
Md Nayem Hossen

০১. mathematics শব্দের উৎপত্তি গ্রিক শব্দ mathema […]

বাংলাদেশ ও বৈশ্বিক পরিবেশ পরিবর্তনঃ - কৃষিকার্যে প[…]

বাংলাদেশের পরিবেশঃ - ভূ-প্রকৃতি অনুসারে বাংলাদেশকে[…]

অঞ্চলভিত্তিক ভৌত পরিবেশ - এশিয়া মহাদেশের বৃহত্তম […]

মোবাইল থেকে বিডিচাকরি খুব সহজে ব্যবহার করার জন্য