Let's Discuss!

সাধারণ জ্ঞান বিষয়ক বিস্তারিত তথ্য
#6995
ইরাক
১.ইরাক স্বাধীনতা লাভ করে ১৯৩২ সালে।
২.ইরাকের রাজধানী বাগদাদ।
৩. ইরাকের প্রেসিডেন্ট বারহাম সালিহ এবং প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ তৌফিক আল্লাবি।
৪. আরব দেশগুলো পাশ্চাত্যের ওপর তেল অস্ত্র বা তেল অবরোধ আরোপ করে ১৯৭৩ সালে।
৫. ইরাক-ইরান যুদ্ধ হয় শাত-ইল-আরব জলাধারকে কেন্দ্র করে ১৯৮০-১৯৮৮ সালে। ১৯৮৮ সালে এই দুই দেশের মধ্যে যুদ্ধবিরতি স্বাক্ষরিত হয়।
৬. ১৯৯০ সালে ইরাক কুয়েতকে ১৯তম প্রদেশ ঘোষণা করে। মার্কিন নেতৃত্বাধীন মিত্রবাহিনী কুয়েতের পক্ষে ইরাকে হামলা চালায় ১৯৯১ সালে, যা অপারেশন ডেজার্ট স্টর্ম বা প্রথম উপসাগরীয় যুদ্ধ নামে পরিচিত। ১৯৯১ সালে, যা অপারেশন ডেজার্ট স্টর্ম বা প্রথম উপসাগরীয় যুদ্ধ নামে পরিচিত। ১৯৯১ সালেই ইরাক জাতিসংঘের সব শর্ত মেনে নিয়ে কুয়েত থেকে সৈন্য প্রত্যাহার করে নেয়। ইরাক কুয়েতবে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি দেয় ১৯৯৪ সালে।
৭. উপসাগরীয় যুদ্ধে ইরাকের সুসজ্জিত বাহিনীর নাম ছিল রিপাবলিকান গার্ড এবং উপসাগরীয় যুদ্ধে ব্যবহৃত ‘প্যাট্রিয়ট’ ক্ষেপণাস্ত্রটি ছিল যুক্তরাষ্ট্রের।
৮. ১৯৯৮ সালে ইরাকে USA এবং UK -এর সম্মিলিত সামরিক অভিযানটি অপারেশন ডেজার্ট ফক্স নামে পরিচিত, UK+USA (ইংল্যান্ড + মার্কিন) =ইঙ্গ-মার্কিন।
৯. ২০০৩ সালে ইঙ্গ-মার্কিন বাহিনী কর্তৃক ইরাকে পরিচালিত অভিযান অপারেশন ইরাকি ফ্রিডম নামে পরিচিত, যা আবার দ্বিতীয় উপসাগরীয় যুদ্ধ নামেও পরিচিত এবং সাদ্দাম হোসেনকে গ্রেপ্তারের জন্য পরিচালিত অভিযান অপারেশন রেড ডন নামে পরিচিত। সাদ্দাম হোসেনকে মার্কিন বাহিনী তিরকিতের আদ-দাউদ নামের এক ছোট্ট শহরের খামারবাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে।
১০. ইরাকে শিয়াপন্থি মার্কিনবিরোধী গেরিলা গ্রুপের নাম মেহেদি আর্মি।
১১. ইরাকের জাতীয় পতাকায় ‘আল্লহু আকবর’ লেখা আছে।
১২. ২০১১ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইরাকে তাদের মিশন সমাপ্ত করে বা সর্বশেষ মার্কিন সেনাদল ইরাক ছাড়ে।

ইরান
১. ইরানের রাজধানী তেহরান এবং সরকারি নাম ইসলামিক রিপাবলিক অব ইরান।
২. ইরান দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জার্মানিকে সমর্থন করে।
৩. ইরানে ইসলামি বিপ্লব সংঘটিত হয় ১৯৭৯ সালে। এই বিপ্লবের ফলে শাহ মোহাম্মদ রেজা পাহলভি ক্ষমতাচ্যুত হন এবং ইরান ত্যাগ করেন। ১৯৭৯ সালেই ইরানে ইসলামি প্রজাতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়।
৪. ইরানের প্রথম প্রধান ধর্মীয় নেতা ছিল আয়তুল্লাহ রুহুলুল্লাহ খোমেনি। বর্তমানে প্রধান ধর্মীয় নেতা আয়তুল্লাহ আলী খোমেনি এবং বর্তমান প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। ক্ষমতাসীন দলের নাম প্রগতিশীল দল।
৫. ইরান-ইরাক যুদ্ধবিরতিতে অংশগ্রহণকারী জাতিসংঘ বাহিনীর সংক্ষিপ্ত নাম UNIIMOG । ১৯৮৮ সালে নিয়োজিত এই মিশনে অংশগ্রহণের মাধ্যমে বাংলাদেশের সেনাবাহিনী প্রথমবারের মতো UN Peace Keeping মিশনে অংশগ্রহণ করে।
৬. ইরানের পতাকায় কালেমা তাইয়্যেবা লেখা আছে এবং ইরানের পতাকা অর্ধনমিত করা হয় না।
৭.ইরানের তেলসমৃদ্ধ স্থান ‘খাড়গ দ্বীপ’।
    Similar Topics
    TopicsStatisticsLast post
    0 Replies 
    654 Views
    by sakib
    0 Replies 
    806 Views
    by rajib
    0 Replies 
    311 Views
    by Ksaddam32843
    0 Replies 
    103 Views
    by exoticsagor
    0 Replies 
    70 Views
    by exoticsagor

    -১২ মার্চ ২০২১ জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের জন্য জনসন […]

    ফাইজপার ও মডার্নার পর যুক্তরাষ্ট্রের করেনারার তৃতী[…]

    -যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশ হেফাজতে মারা যাওয়া কৃষ্ণাঙ্গ[…]

    -সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নিষেধ[…]