Let's Discuss!

সাধারণ জ্ঞান বিষয়ক বিস্তারিত তথ্য
By raju
#6959
ইউনিয়ন অব সাউথ আফ্রিকা গঠিত হয় ১৯১০ সালে। আফ্রিকা মহাদেশের একমাত্র শিল্পোন্নত দেশ দক্ষিণ আফ্রিকা। দক্ষিণ আফ্রিকা আটলান্টিক এবং ভারত উভয় মহাসাগরের উপকূলে অবস্থিত। ১৯৪৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় বর্ণবাদ নীতি চালু হয়। এই নীতির আওতায় দক্ষিণ আফ্রিকার জনগণকে শ্বেতাঙ্গ, কৃষ্ণাঙ্গ, রঙিন, ভারতীয়- এই চার ভাগে ভাগ করা হয়। ১৯৯৪ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় বর্ণবাদের অবসান হয়। ফলে দক্ষিণ আফ্রিকায় ৩৪২ বছরের শ্বেতাঙ্গ শাসনেরও অবসান হয়। দক্ষিণ আফ্রিকার শেষ শ্বেতাঙ্গ প্রেসিডেন্ট ছিলেন ফ্রেডরিক উইলিয়াম ডি ক্লার্ক। বর্ণবাদনীতির প্রবক্তা ছিলেন জেমস হার্জগ। দক্ষিণ আফ্রিকা ঐতিহাসিক বামপন্থি রাজনৈতিক দল ANC (African National Congress) গঠিত হয় ১৯১২ সালে। ANC গঠনে ভূমিকা রাখেন মহাত্মা গান্ধী। দক্ষিণ আফ্রিকার বর্ণবাদী সরকার ১৯৬০ সালে ANC-কে নিষিদ্ধ করেছিল। ১৯৬১ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা কমনওয়েলথ ত্যাগ করে এবং একই বছর নেলসন ম্যান্ডেলা ANC- র সশস্ত্র শাখা গঠন করেন। ১৯৬২ সালে বর্ণবাদী সরকার নেলসন ম্যান্ডেলাকে গ্রেপ্তার করে এবং ১৯৬৪ সালে তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়। দীর্ঘ ২৭ বছর কারাভোগের পর ১৯৯০ সালে তিনি মুক্তি লাব করেন এবং ANC-এর ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়। এই ২৭ বছরের অধিকাংশ সময় তিনি রোবেন দ্বীপে কারারুদ্ধ ছিলেন। ১৯৯৩ সালে তিনি এবং শেষ শ্বেতাঙ্গ প্রেসিডেন্ট উইলিয়াম ফ্রেডেরিক ডি ক্লার্ক যুগ্মভাবে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৯৪ সালে নেলসন রোহিলালা ম্যান্ডেলা গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম রাষ্ট্রপতি হন। তিনি ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট ছিলেন এবং স্বেচ্ছায় অবসরে যান। দক্ষিণ আফ্রিকায় ম্যান্ডেলা তাঁর গোত্রের দেওয়া মাদিবা নামে পরিচিত। তিনি ‘Yes for the children’ এর প্রতিষ্ঠাতা। ১৯৬৪ সালের ‘৬৪’ এবং ম্যান্ডেলা ছিলেন ৪৬৬ নম্বর কয়েদি। এই দুটির সমন্বয়ে এইডসবিরোধী আন্দোলন ৪৬৬৬৪। নেলসন ম্যান্ডেলার আত্মজীবনীমূলক বইয়ের নাম ‘A Long walk to freedom’। তিনি ২০১৩ সালে ৫ ডিসেম্বর পরলোক গমন করেন। তার নিজ গ্রাম কুনুতে তাকে সমাহিত করা হয়। ANC- এর বর্তমান চেয়ারম্যান এবং দক্ষিণ আফ্রিকার বর্তমান প্রেসিডেন্ট হলেন Cyril Ramaphosa।
• নেলসন ম্যান্ডেলাকে নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্র ‘দ্য হিউমেন ফ্যাক্টর’।
• দক্ষিণ আফ্রিকার একমাত্র নদীবন্দরের নাম ইস্ট লন্ডন।
• ’Conversations Myself’ নামে গ্রন্থটি রচনা করেন নেলসন ম্যান্ডেলা।
ডেসমন্ড টুটু
দক্ষিণ আফ্রিকার বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনে আরেক উজ্জ্বল নক্ষত্রের নাম ডেসমন্ড টুটু। তিনি ১৯৩১ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার ট্রান্সভালে জন্মগ্রহণ করেন এবং বর্তমানে জীবিত আছেন। নেলসন ম্যান্ডেলা যখন কারাগারে বন্দি, তখন ডেসমন্ড টুটু শ্বেতাঙ্গদের বর্ণবাদী নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হন। তিনি ১৯৮৪ সালে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন।
    Similar Topics
    TopicsStatisticsLast post
    0 Replies 
    228 Views
    by bdchakriDesk
    0 Replies 
    224 Views
    by raju
    0 Replies 
    220 Views
    by raju
    0 Replies 
    370 Views
    by rekha
    0 Replies 
    169 Views
    by kamal

    -১২ মার্চ ২০২১ জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের জন্য জনসন […]

    ফাইজপার ও মডার্নার পর যুক্তরাষ্ট্রের করেনারার তৃতী[…]

    -যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশ হেফাজতে মারা যাওয়া কৃষ্ণাঙ্গ[…]

    -সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নিষেধ[…]