Try bdQuiz for Free!

চাকরি প্রর্থীদের সমস্যা, প্রশ্ন, মতামত এবং বিভিন্ন পেশা সর্ম্পকে আলোচনা, অভিজ্ঞতা ও পরামর্শ
#716
১. ঝুঁকি
বাফেট বলেন, ঝুঁকি তাকেই বলে, তুমি যা করছো, আসলে তুমি তার সম্পর্কে জানো না। এর অর্থ, তোমার সামনে দু’টো পথ খোলা আছে, তুমি কোন পথে চলবে, তা বেছে নিতে হবে ফলাফল না জেনেই। হয় তুমি একজন বড় জুয়াড়ির মতো সামনের দিকে এগিয়ে যেতে পারো, নতুবা খানিকটা দেখেশুনে ধীর গতিতে ঝুঁকিটা নিতে পারো। হয় তুমি নিস্য হবে কিন্তু শিখবে, নতুবা জয়ী হবে। কিন্তু নেতৃত্ব দিতে চাইলে তোমাকে ঝুঁকি নিতেই হবে। ব্যবসায় তোমাকে বিনিয়োগ করতে হবে এর বিনিময়ে কি পাবে, তা না জেনেই। তবে বিচক্ষণতা অবশ্যই থাকতে হবে। সেই সাথে থাকতে হবে প্ল্যান।

২. খ্যাতি
বাফেট ভাষায়, খ্যাতি অর্জনে অনেক সময় লাগে। উদাহরণস্বরূপ বলতে পারি, তোমার খ্যাতি অর্জন করতে ২০ বছর সময় লাগলো, কিন্তু একটা ভুলই যথেষ্ট পাঁচ মিনিটে তোমাকে কুখ্যাত করে দিতে। এই ডিজিটাল যুগে এটা তো আরো সত্য। তোমাকে নিযে কোনো লেখা বা ভিডিও এই যুগে চিরজীবন অক্ষত থাকবে। অতএব সাধু সাবধান।

৩. কারা তোমাকে ঘিরে রয়েছে
বাফেট বলেন, একা থাকার চেয়ে সঙ্গী থাকা অনেক ভালো। সবসময় চেষ্টা করবে তাদের সাথেই থাকতে এবং নিজ প্রতিষ্ঠানে তাদেরকে কদর করতে, যারা সবচেয়ে ভালো। যদি তোমাকে ঘিরে দক্ষ এবং যোগ্য মানুষ থাকে, তাহলে সাফল্য

৪. বোধদয়
বাফেটের মতে, ব্যবসায়ীক জগতে সবসময়ের পেছনের আয়নাটা পরিষ্কার থাকে। এই কথা তোমার জীবনের প্রতিটা পদক্ষেপের জন্যই সত্য। তবে তুমি যদি এর থেকে শিক্ষাটা নিয়ে থাকো, তাহলে আর পেছনে তাকিয়ে সময় ক্ষেপনের কোনো মানে হয় না। সামনের দিকে তাকাও, নিজের মতো করে এগিয়ে যাও।

৫. নির্বুদ্ধিতা এবং ভুল
বাফেট বলেন, আমি ৯০ সালের মাঝামাঝি সময়ে ৪শ’ মিলিয়ন ডলার খরচ করে ‘ডেক্সটার শু’ কোম্পানিটি কিনেছিলাম। এবং তার ফলাফল শূণ্য। আমি বার্কশায়ারের ৪শ’ মিলিয়ন ডলারের স্টক হারালাম, যার বর্তমান মূল্য সম্ভবত ৪শ’ বিলিয়ন ডলার। আমি এমন ভুল বহুবার করেছি। এটা খেলারই একটা অংশ। কোনো সফল মানুষই ভুলের উর্ধে নয়। এবং ভুল করা ভালো। প্রতিটা ভুলই কিছু শিক্ষা দিয়ে যায় এবং একই কাজ আবার করতে গেলে আগের ভুলের ফলাফল একটা সতর্কবাণী হিসেবে কাজ করে।

৬. কখন থেমে যেতে হবে, জানা
বাফেটের ভাষায়, তুমি কি কখনো এমন কোনো নৌকায় উঠেছো, যা ক্রমাগত ছিদ্র হচ্ছে? যদি উঠে থাকো, দেখবে নৌকা পরিচালনা করতে তুমি যে শক্তি ব্যয় করবে, তার চেয়ে বেশি শক্তি ব্যয় করবে ছিদ্রগুলো বন্ধ করতে। আমার কথার অর্থ, তুমি যদি সত্যিই জানো কখন থেমে যেতে হবে, তাহলে তোমার সকল প্রজেক্টই সুরক্ষিত থাকবে।

৭. সংযম
বাফেট অত্যন্ত সংযমী একজন মানুষ। ১৯৫৮ সাল থেকে তিনি নেব্রাস্কার ওমাহাতে একই বাড়িতে বসবাস করে আসছেন। এই বাড়িটি তিনি কিনেছিলেন ৩১ হাজার ৫শ’ ডলার দিয়ে। এমনকি গত পঁচশ বছর ধরেই বাফেট তার কোম্পানি থেকে ১ লাখ ডলার করে বাৎসরিক বেতন নিচ্ছেন। ইদানিং দেখা যায়, অনেক নেতাই তার কোম্পানি থেকে যতোটা পারেন শুষে নেন, লভ্যাংশ একাই ভোগ করতে চান। কিন্তু বাফেট সে দলে নন। আর তিনি এমন নন বলেই এমনভাবে এতোটা দীর্ঘসময় নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন।

Collected: Raysul Islam Redoy

    প্রাচীন বাংলার সীমা উত্তরে: হিমালয় পর্বত, নেপাল, […]

    ১৯৭১ এ বাংলাদেশ পশ্চিম পাকিস্তান থেকে স্বাধীনতা লা[…]

    চাকরি পাওয়া বর্তমান সময়ের সবচেয়ে কঠিন কাজগুলোর […]

    পড়াশোনার শেষ ধাপে এসে সবাই চিন্তিত হয়ে পড়েন ক্য[…]

    bdQuiz খেলতে খেলতে নিজের প্রস্তুতি পরীক্ষা করুন