Let's Discuss!

দৈনন্দিন বিজ্ঞান বিষয়ক সাধারণ জ্ঞান
#6886
• ২৩ জুলাই ২০২০ মঙ্গলের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করে চীনা মহাকাশযান তিয়ানওয়েন-১। একটি ল্যান্ডার ও একটি রোভার নিয়ে পাঁচ টন ওজনের এ মহাকাশযান ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২১ লালগ্রহের কক্ষপথে ঢুকে পড়ে। আর মে ২০২১ এটি পৌঁছে যাবে গ্রহের ‘ইউটোপিয়া’ এলাকায়। মঙ্গলের কক্ষপথে প্রবেশের আগে প্রায় ২২ লাখ কিলোমিটার দূর থেকে গ্রহটির ভূপৃষ্ঠের Schiaparelli Crater (সুবিশাল গর্ত) আর গিরিখাতে ভরা এলাকা Valles Marineris-এর বেশ কিছু ছবি তোলে তিয়ানওয়েন-১। ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ছবিগুলো প্রকাশ করে চীনা জাতীয় মহাকাশ প্রশাসন (CNSA)। পরবর্তীতে মহাকাশযানটি মঙ্গলের ভিডিও পাঠাতেও সক্ষম হয়।
• মঙ্গলগ্রহের বায়ুমণ্ডলে জলীয় বাষ্পের একটি পাতলা স্তর লক্ষ্য করা গেছে বলে জানান ইউরোপিয়ান এবং রুশ মহাকাশ সংস্থার বিজ্ঞানীরা। ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সি (ESA) এবং রাশিয়ান স্পেস এজেন্সি (Roscosmos) ১৪ মার্চ ২০১৬ মঙ্গলগ্রহে পাঠিয়েছিল ExoMars Trace Gas অরবিটার। ১৯ অক্টোবর ২০১৬ সেটি মঙ্গলের কক্ষপথে পৌঁছায়। প্রায় পাঁচ বছরের মাথায় সেই অরবিটার থেকে এলো দারুণ এ আবিষ্কারের তথ্য।
• ২০ জুলাই ২০২০ প্রথম কোনো আরব দেশ হিসেবে মঙ্গলগ্রহের উদ্দেশ্যে নভোযান প্রেরণ করে সংযুক্ত আরব আমিরাত। ১.৩ টন ওজনের নভোযানটির নাম ‘আল আমাল’। আরবি ‘আমাল’ শব্দের ইংরেজি অর্থ Hope। প্রায় সাত মাসে ৩০ কোটি মাইল ভ্রমণ করে ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১ লালগ্রহের কক্ষপথে প্রবেশ করে মহাকাশযান ‘আমাল’। এর পর নভোযানটি মঙ্গলগ্রহের ছবি পাঠায়, যা ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ প্রকাশ করা হয়। ছবিতে দেখা যায়, সূর্যের আলোয় আলোকিত হচ্ছে মঙ্গলগ্রহ। এছাড়া গ্রহটির উত্তর মেরু ও সবচেয়ে বড় আগ্নেয়গিরি Olympus Mons ও ছবিতে চোখে পড়ে।
• ’লালগ্রহ’ মঙ্গলের কোথায় কোথায় নামলে মানুষের পানি পেতে খুব একটা অসুবিধা হবে না- একেবারে ধরে ধরে সেই জায়গাগুলো বাছাই করেছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা, যা ভবিষ্যতে পৃথিবীবাসীকে একের পর এক বসতি গড়ে তুলতে সাহায্য করবে। সে জায়গাগুলোর অবস্থান, দিক-দিশার সব খুঁটিনাটিও দেখানো হয়। লালগ্রহে মানুষের আগামি দিনের বসবাসের সম্ভাব্য এলাকাগুলোর এত বিস্তারিত মানচিত্র বানানো সম্ভব হলো এ প্রথম। মানচিত্রের গবেষণাপত্রটি ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ প্রকাশিত হয় আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান সাময়িকী ‘নেচার অ্যাস্ট্রোনমি’তে।
• ৩০ জুলাই ২০২০ মঙ্গলগ্রহের উদ্দেশ্যে প্রেরণ করা হয় মার্কিন মহাকাশযান Perseverance। ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ নভোযানটি মঙ্গলের মাটিতে অবতরণ করে। এতে নেয়া হয় ১.৮ কেজি বা ৪ পাউন্ড ওজনের চার পা বিশিষ্ট চার ফুট উচ্চতার বাক্স আকৃতির একটি হেলিকপ্টার। এর মাধ্যমে প্রথমবারের মতো মঙ্গলগ্রহে হেলিকপ্টার পাঠানোর ঘটনা ঘটে। Ingenuity নামের যানটিকে হেলিকপ্টার বলা হলেও আসলে এটি দেখতে অনেকটা ছোট আকারের ড্রোনের মতো। হেলিকপ্টারের তুলনায় এর ব্লেডগুলো আকারে বড় এবং পাঁচগুণ বেশি দ্রুত ঘোরে, প্রতি মিনিটে ২৪০০ বার। এতে রয়েছে দুটি ক্যামেরা, কম্পিউটার ও নেভিগেশন সেন্সর।
    Similar Topics
    TopicsStatisticsLast post
    0 Replies 
    858 Views
    by masum
    0 Replies 
    860 Views
    by masum
    0 Replies 
    580 Views
    by masum
    0 Replies 
    248 Views
    by masum
    0 Replies 
    283 Views
    by masum

    জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের স্মারক নং-০৫.০০.০০০০.১৬৬.১[…]

    NRB Bank Limited one of the 4th generation commerc[…]

    ১. পৃথিবীর প্রাচীনতম চলচ্চিত্র রাউন্ডহে গার্ডন নির[…]

    ১. গণযোগাযোগের আদি মধ্য হলো সংবাদপত্র। ২. এডমন্ড ব[…]