Let's Discuss!

দৈনন্দিন বিজ্ঞান বিষয়ক সাধারণ জ্ঞান
#5334
১.এপিথেলিয়াল টিস্যু রূপান্তরিত হয়ে কী কাজে অংশ নেয়?
-রক্ষণ, ক্ষরণ, শোষণ, ব্যাপণ ও পরিবহন ইত্যাদি কাজে।
২.কোন বিশেষ টিস্যু দিয়ে স্নায়ুতন্ত্র গঠিত হয়?
-স্নায়ুটিস্যু।
৩.মেরুদন্ডীর পৌস্টিকনালীর অন্তঃআবরণীতে পাওয়া যায় –
-স্তম্ভাকার আবরণী টিস্যু।
৪.বহিঃঅঙ্গসংস্থান বিদ্যায় বিশদভাবে আলোচনা করা হয় কোনগুলো?
-চক্ষু, কর্ণ, নাসিকা, হাত, পা, মাথা, ইত্যাদি।
৫.খাদ্যগ্রহণ, পরিপাক, শোষণ এবং অপাচ্য খাদ্যাংশ নিষ্কাশনের সাথে জড়িত কোনটি?
-পরিপাকতন্ত্র।
৬.মানুষের লালাগ্রন্থি, যকৃত এবং অগ্ন্যাশয় কাজে করে কী হিসেবে?
-পৌষ্ট্রিক গ্রন্থি হিসেবে।
৭.দেহের বাইরের দিকে আচ্ছাদনকারী আবরণ থাকে তাকে কী বলা হয়?
-ত্বক।
৮.মানবদেহের সবচেয়ে বড় অঙ্গ কোনটি?
-ত্বক।
৯.দেহে মেলানিনের কাজ কী?
-সূর্যরশ্মির ক্ষতিকর প্রভাব থেকে দেহকে রক্ষা করা।
১০.স্বাভাবিক অবস্থার অস্থিতে পানি থাকে কতভাগ?
-৪০-৪৫ ভাগ।
১১.এনজাইম হলো –
-এক ধরনের প্রোটিন।
১২.পিত্তের বর্ণের জন্য দায়ী বিলিরুবিন যা তৈরি হয় কোথায়?
-প্লীহায়।
১৩.আমাদের দেহে খাদ্য হজম করতে সময়ের প্রয়োজন কত ঘন্টা?
-প্রায় ৫ ১/২ ঘন্টা।
১৪.রক্তরসের জৈব পদার্থের মধ্যে থাকে বিভিন্ন ধরনের কী?
-রক্তপ্রোটিন ও বর্জ্য পদার্থ।
১৫.রক্তকণিকা কত প্রকার?
-তিন প্রকার।
১৬.শ্বেত রক্তকণিকার পরিমাণ বেড়ে গেলে কী হয়?
-লিউকেমিয়া।
১৭.রক্তকণিকাগুলো সৃষ্টি হয় হাড়ের ভিতরে অবস্থিত কী দ্বারা?
-লোহিত অস্থিমজ্জায়।
১৮.রক্তের গ্রুপ কে আবিষ্কার করেন?
-কার্ল ল্যান্ডস্টেইনার।
১৯.ক্ষতস্থানে শ্বেকণিকায় মৃত্যুর ফলে সাদা যে দুর্গন্ধময় বস্তু সৃষ্টি হয় তাকে কী বলে?
-পুঁজ।
২০.মানবদেহে প্রতিরক্ষক হিসেবে কাজ করে কয় ধরনের প্রোটিন?
-দুই।
    Similar Topics
    TopicsStatisticsLast post
    0 Replies 
    110 Views
    by tarek
    0 Replies 
    90 Views
    by tarek
    0 Replies 
    91 Views
    by tarek
    0 Replies 
    93 Views
    by tarek
    0 Replies 
    165 Views
    by tarek