Let's Discuss!

আর্ন্তজাতিক বিষয়ক সাধারণ জ্ঞান
#7159
#কালাপানি লিপুলেখ ও লিম্পিয়াধুরা: ভারত ও নেপালের মধ্যে বিরোধপূর্ণ সীমান্ত। যেগুলো বর্তমানে ভারতের দখলে।
# লাদাখ, অরুণাচল: ভারত ও চীনের মধ্যে বৃহত্তম সীমান্ত বর্তমানে ভারতের নিয়ন্ত্রণে।
# আকসাই চীন:কাশ্মীরের লাদাখ ও চীনের শিনজিয়াং অংশে অবস্থিত ভারত ও চীনের মধ্যকার বিরোধপূর্ণ সীমান্ত।১৯৬২ সালের ভারত-চীন যুদ্ধের সময় চীন ভারতের কাছ থেকে দখল করে নেয়।ওই অঞ্চলের আয়তন প্রায় ৩৮ হাজার বর্গ কিলোমিটার।
# নার্গানো কারাবাখ: আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে বিরোধপূর্ণ সীমান্ত।(সম্প্রতি এলাকা নিয়ে যুদ্ধে জড়াই দেশ দুটি।রাশিয়া-প্রস্তাবিত নয়-দফা শান্তি চুক্তিতে রাজি হয় আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান। সেই চুক্তিতে সই করেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন, আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ ও আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল পাশিনইয়ান)
# মংডু ও ঘুনধুম : বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যে বিরোধপূর্ণ সীমান্ত।মংডু হলো বাংলাদেশের কক্সবাজার সীমান্তে মিয়ানমারের একটি জেলা শহর । নাফ নদীর মাধ্যমে মংডু ও বাংলাদেশের টেকনাফ শহর আলাদা হয়ে আছে। টেকনাফ-মংডু বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যকার একটি সীমান্ত বাণিজ্য ও বটে।
# খাইবার গিরিপথ: পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের মধ্যে বিরোধপূর্ণ সীমান্ত।আফগানিস্তান এবং পাকিস্তানকে সংযুক্ত করেছে। এটি প্রাচীন সিল্ক রোডের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ ছিলো এবং এটি পৃথিবীতে ব্যবহৃত প্রাচীনতম গিরিপথগুলোর মধ্যে অন্যতম।
#কারগিল: ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে অবস্থিত।বিশ্বের সবচেয়ে বেশি অস্ত্র সজ্জিত সীমান্ত।ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের সীমান্ত থেকে মাত্র কয়েক কিলোমিটার দূরে অবস্থিত শহর কারগিল৷ সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে কারগিলের উচ্চতা প্রায় ষোলো হাজার ফুট৷ ১৯৯৯ সালের মে মাসে এই কারগিলেই ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সর্বশেষ যুদ্ধের শুরু৷
# প্রিয়া বিহার মন্দির: থাইল্যান্ড ও কম্বোডিয়ার মধ্যে বিরোধপূর্ণ সীমান্ত। বর্তমানে কম্বোডিয়ার দখলে।বছরের পর বছর ধরে কম্বোডিয়া আর থাইল্যান্ডের ভিতরে চলছে যুদ্ধ। কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে দুই দেশের সীমান্তে অবস্থিত ৯০০ বছরের পুরনো হিন্দু মন্দির প্রিয়া বিহার। মূলত এর মালিকানা নিয়ে এই সংঘর্ষের সূত্রপাত। প্রিয়া বিহার মন্দিরটি কম্বোডিয়ার বাইরে অবস্থিত খেমাররুজ স্থাপত্যকলার অন্যতম একটি নিদর্শন। ১৯৬২ সালে আন্তর্জাতিক আদালত বিহারটির মালিকানা নিয়ে কম্বোডিয়ার পক্ষে রায় দেয়। তবে প্রতিবেশী দুই দেশই দাবি করে আসছে, মন্দিরের চারপাশে ৪ দশমিক ৬ বর্গ কিলোমিটার এলাকা তাদের মালিকানাধীন। কম্বোডিয়ার ভাষ্যমতে এ অঞ্চলটির সীমানা কখনই এ রকম ছিল না। কেবল ২০ শতকে ফ্রেঞ্চদের আধিপত্যে থাকাকালীন তাদের আঁকা একটি ভুল ম্যাপের কারণে সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। তবে মন্দিরটি যেন বিশ্ব ঐতিহ্যের সম্মান পায় সেজন্য উৎসুক ছিল থাই জনগণ। শেষমেশ যখন ২০০৮ সালের জুলাইয়ে এটিকে জাতিসংঘ বিশ্ব ঐতিহ্য হিসেবে ঘোষণা করল তখন আরও গর্জে ওঠে থাইল্যান্ড। কারণ মন্দিরের মালিকানার পক্ষে রায় রয়েছে কম্বোডিয়ার। শুরু হয় দুই দেশের বিরোধিতা। এখন পর্যন্ত প্রায়ই সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে এই সীমানার দুপাশের মানুষেরা। যদিও মাঝখানে একবার শান্তি প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করা হয়েছিল তাতে কোনো লাভই হয়নি।
# ডোকলাম উপত্যকা: ভারত- চীন -ভুটান সীমান্তে অবস্থিত একটি মালভূমি। বর্তমানে এটি ভুটানের দখলে। ২০১৭ সালে চীনে রাস্তা নির্মাণ নিয়ে ভারত চীন বিরোধ দেখা দেয়, এতে উভয় দেশ সেনা মোতায়েন করে এবং উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। পরে চীন তাদের সৈন্য ফিরিয়ে নেয়।
# সিয়াচেন হিমবাহ: কাশ্মীরে অবস্থিত বিশ্বের উচ্চতম যুদ্ধক্ষেত্র। এটি বর্তমানে ভারতের দখলে।সিয়াচেন দ্বন্দ্ব ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে কাশ্মীরের সিয়াচেন হিমবাহের অধিকারের জন্য সামরিক দ্বন্দ্ব। ১৯৮৪ খ্রিষ্টাব্দে ভারতের সফল সামরিক অভিযান অপারেশন মেঘদূতের মাধ্যমে এই দ্বন্দ্বের সূত্রপাত হয়।

    জাতীয় অধ্যাপক বাংলাদেশের বিশেষ রাষ্ট্রীয় সম্মানন[…]

    ১. মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশের বন্ধুপ্রতিমরাষ্ট্র ছিল […]

    ১. কলম্বিয়া দেশটি কোন মহাদেশে অবস্থিত ?দক্ষিণ আমে[…]

    ১. বাংলাদেশ প্রথম কোন আন্তর্জাতিক সংস্থার সদস্যপদ […]