Let's Discuss!

আর্ন্তজাতিক বিষয়ক সাধারণ জ্ঞান
#3724
২১ ফেব্রুয়ারীকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে বিশ্বব্যাপী পালন করা হয়।
১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারী দিনটি ছিল বৃহস্পতিবার এবং ঐতিহাসিক এ দিনটির বাংলা তারিখ ৮ ফাল্গুণ।
২১ ফেব্রুয়ারীকে ১৯৯৯ সালের ১৭ নভেম্বর ইউনেস্কো তার ৩১ তম বৈঠকে ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ হিসেবে ঘোষণা করে।
২০০০ সালে প্রথমবারের মতো বাংলা ভাষাকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালন করা হয়। প্রথম বছরে ১৮৮ টি দেশ এ দিবস পালন করে।
জাতিসংঘ ২০০৮ সালে ২১ ফেব্রুয়ারীকে ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ হিসেবে স্বীকৃতি দেয়।
‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ উপলক্ষে প্রথম বারের মতো বাংলাদেশের কেনদ্রীয় শহীদ মিনারের ছবিসংবলিত ডাক টিকিট প্রকাশ করে যুক্তরাষ্ট্র।
বাংলা ভাষাকে বিশ্বের মাঝে বিশ্বের মাঝে যথাযথভাবে তুলে ধরার জন্য ২০০৩ সালে বাংলাদেশ সরকার ইউনেস্কোকে ‘একুশে পদক’ প্রদান করে।
ভাষাভাষী জনসংখ্যার বিবেচনায় বাংলা ভাষার অবস্থান বিশ্বে বাংলা পিডিয়ার সূত্রমতে সপ্তম এবং মাধ্যমিক বাংলা ব্যাকরণ বইয়ের সূত্রমতে চতুর্থ।
বাংলা ভাষাকে দ্বিতীয় রাষ্ট্রভাষার মর্যাদা দিয়েছে সিয়েরা লিওন।
বাংলা ভাষাকে জীবনের সর্বস্তরের ব্যবহারের জন্য জাতীয় সংসদে আইন পাস হয় ১৯৮৭ সালে।
সরকারি ভাষা হিসেবে এই দেশে ইংরেজি ভাষা শুরু হয় ১৮৩৫ সালে।
১৯৭৫ সালের ২১ মার্চ রাষ্ট্রপতি শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাকে রাষ্ট্র ও জাতীয় ভাষা ঘোষণা করেন। আদেশে বলা হয় – সরকারি, স্বায়ত্ত্বশাসিত সংস্থা ও আধাসরকারি অফিসে বাংলায় নথি ও চিঠি পত্র লিখতে হতো।
১৯৪৮ সালে ভাষা আন্দোলনের সর্বপ্রথম গান রচনা করেন অধ্যাপক আনিসুল হক চৌধুরী। গানটির সুর করেন শেখ লুৎফর রহমান।
২১ ফেব্রুয়ারি ১৯৫২ চট্টগ্রামের মাহবুবুল আলম চৌধুরী কাদতে আসিনি ফাসির দাবি নিয়ে এসেছি নামে ১৬ পৃষ্ঠার কবিতা রচনা করেন। এটি ছিল একুশের প্রথম কবিতা।
ভাষাসংগ্রামী গাজীউল হক রচনা কেরেন ভুলবোনা ভুলবো না একুশে ফেব্রুয়ারি ভুলবোনা। সুর করেন তার ভাই নিজামুল হক। এটি ছিল একুশের প্রথম গান।
সাপ্তাহিক সৈনিক ছিল ভাষা আন্দোলনের মুখপাত্র। ১৯৪৮ সালে অধ্যাপক সাহেদ আলী সম্পাদনায় প্রকাশ শুরু হয়। পাকিস্তানের গণপরিষদে প্রথম বাংলা বক্ততা দেন মাওলান আব্দুর রশীদ তর্কবাগীশ।
বাংলাদেশের বাইরে ভাষা আন্দোলন: ১৯৬১ সালের ১৯ মে বাংলা ভাষার দাবিতে আসামের কাছাড় জেলায় ভাষা আন্দোলন সংগঠিত হয়। পুলিশ গুলি চালালে ১১ জন মার যান। ১৯ মে আসামে রাষ্ট্রভাষা দিবস পালিত হয়। ১৯৬১ সালেই অসমীয় ভাষার পাশাপাশি বাংলাকেও আসামের সরকারি ভাষার ঘোষণা করা হয়।
১৯৯৭ সাল ব্রিটেনের ওল্ডহ্যাম শহরে প্রথম শহিদমিনার নির্মিত হয়। এটি ছিল দেশের বাইরে নির্মিত প্রথম শহিদ মিনার।
    Similar Topics
    TopicsStatisticsLast post
    0 Replies 
    309 Views
    by rana
    0 Replies 
    165 Views
    by arony590
    1 Replies 
    197 Views
    by fency
    1 Replies 
    177 Views
    by zahangir
    0 Replies 
    140 Views
    by fency

    বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিকের প্রথম নারী সম্পাদক তাসমি[…]

    -দেশের টেলিভিশনে প্রথমবারের মতো একজন ট্রান্সজেন্ডা[…]

    -মুজিববর্ষে ‘গভর্নমেন্ট জব পোর্টাল’ না[…]

    মুক্তিযোদ্ধাদের বীরনিবাস ভূমিহীন ও আসচ্ছল মুক্তিয[…]