Let's Discuss!

বাংলাদেশ বিষয়ক সাধারণ জ্ঞান
#2354
ভূপ্রকৃতি
ভূপ্রকৃতি অনুসারে বাংলাদেশকে তিনটি ভাগে ভাগ করা যায়- ১. টারশিয়ারি যুগের পাহাড় ২. প্লাইস্টোসিন যুগের সোপান অঞ্চল ও ৩. সাম্প্রতিককালের প্লাবন সমভূমি।
১. টারিশিয়ারি যুগের পাহাড়: অবস্থান অনুসারে বাংলাদেশের টারশিয়ারি পাহাড়কে দুই ভাগে ভাগ করা হয়। যথা: ক) বাংলাদেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের পাহাড় এবং খ) উত্তর ও উত্তর-পূর্বাঞ্চলের পাহাড়।
ক) বাংলাদেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের পাহাড়: রাঙ্গামাটি, বান্দরবান, খাগড়াছড়ি, কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম জেলায় অবস্থিত।
খ) উত্তর ও উত্তর-পূর্বাঞ্চলের পাহাড়: সিলেট, মৌলভীবাজার ও হবিগঞ্জ জেলায় অবস্থিত।

২. প্লাইস্টোসিন যুগের সোপান অঞ্চল: রাজশাহী বিভাগের বরেন্দ্রভূমি, টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহ জেলার মধুপুরের গড়, গাজীপুর জেলার ভাওয়ালের গড় এবং কুমিল্লা জেলার লালমাই পাহাড় এ অঞ্চলের অন্তর্গত।
৩. সাম্প্রতিককালের প্লাবন সমভূমি: এ অঞ্চলের আয়তন ১, ২৪, ২৬৬ বর্গকিলোমিটার।

বাংলাদেশের পাহাড়
চট্টগ্রাম অঞ্চলের পাহাড়গুলো আরাকান ইয়োমা পর্বতের অংশ। পাহাড়গুলো টারশিয়ারি যুগের। পাহাড়গুলো ভাঁজ বা ভঙ্গিল পর্বত শ্রেণির।
পাহাড়ের নাম – অবস্থান - তথ্য
গারো পাহাড় - ময়মনসিংহ - বাংলাদেশের সবচেয়ে উঁচু ও বৃহত্তম পাহাড়।
লালমাই পাহাড় – কুমিল্লা –
চন্দ্রনাথ পাহাড় – চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে – হিন্দুদের জন্য তীর্থস্থান।
কুলাউড়া পাহাড় – মৌলভীবাজার – এই পাহাড়ে ইউরোনিয়াম পাওয়া গেছে।
চিম্বুক পাহাড় – বান্দরবান – এই পাহাড়কে ‘কালা পাহাড়’ বা ‘পাহাড়ের রানি’ বলা হয়।
জৈয়ন্তিকা – সিলেট –

বাংলাদেশের পর্বত
পর্বতশৃঙ্গের নাম - উচ্চতার ক্রম - অবস্থান - উচ্চতা
মোদকটং বা সাকা হাফং - প্রথম - থানচি বান্দারবান – এটির উচ্চতা ৩৪৫১ ফুট।
তাজিংডং বা বিজয় - দ্বিতীয় - বান্দরবান - ১২৩১ মিটার বা ৪০৩৯ ফুট [সুত্র : মাধ্যমিক ভূগোল] / ১৪১২ মিটার বা ৪৬৩২ ফুট [সূত্র: পর্যটন করপোরেশন]
কেওক্রাডং - তৃতীয় - বান্দরবান - ১২৩০ মিটার বা ৪০৩৫ ফুট।

দেশের সর্বোচ্চ চূড়া
দেশের সমুদ্রসীমার প্রথম পূর্ণাঙ্গ মানচিত্র প্রণয়নকারী ড. সাইদুর রহমান চৌধুরীর গবেষণায় দেশের সর্বোচ্চ চূড়া ‘ত্লাংময়’। এটির উচ্চতা ৩,৪৫১ ফুট। ২০০৭ সালে এ চূড়ার নামকরণ করা হয় ‘ত্লাংময়’। এটি বম ভাষার শব্দ। ত্রিপুরা ভাষায় ’সাকা হাফং’ নামেও অনেকে এ চূড়াটিকে ডেকে থাকেন। এছাড়া ‘মদক তং’ নামেও পরিচিত এটি। এর অবস্থান থানচি উপজেলায়।

উপত্যকা
দুই দিকে পাহাড় বা পর্বতের মধ্যবর্তী এলাকাকে উপত্যকা বলে।
উপত্যকা বা ভ্যালির নাম – অবস্থান
হালদা উপত্যকা – খাগড়াছড়ি
বলিশিরা উপত্যকা – মৌলভীবাজার
নাপিতখালী উপত্যকা – কক্সবাজার
সাঙ্গু উপত্যকা – চট্টগ্রাম
ভেঙ্গি উপত্যকা – কাপ্তাই, রাঙ্গামাটি
মাইনীমুখী উপত্যকা – রাঙ্গামাটি।
    Similar Topics
    TopicsStatisticsLast post
    0 Replies 
    424 Views
    by Aresantor
    0 Replies 
    403 Views
    by Aresantor
    0 Replies 
    345 Views
    by Aresantor
    0 Replies 
    348 Views
    by rafique
    0 Replies 
    320 Views
    by rafique

    -১২ মার্চ ২০২১ জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের জন্য জনসন […]

    ফাইজপার ও মডার্নার পর যুক্তরাষ্ট্রের করেনারার তৃতী[…]

    -যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশ হেফাজতে মারা যাওয়া কৃষ্ণাঙ্গ[…]

    -সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নিষেধ[…]