Let's Discuss!

বিষয় ভিত্তিক প্রস্তুতি : বাংলদেশ ও বিশ্ব, দৈনন্দিন বিজ্ঞান এবং সাম্প্রতিক ঘটনাবলি
#4100
বিভিন্ন বিখ্যাত অর্থনৈতিক জোট
জোট – দেশ
3 Tigers – জাপান, জার্মানি, ইতালি
4 Tigers – দক্ষিণ কোরিয়া, তাইওয়ান, সিঙ্গাপুর, হংকং
সুপার সেভেন – মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড. ফোর টাইগারস: দক্ষিণ কোরিয়া, তাইওয়ান, সিঙ্গাপুর, হংকং।
ইস্ট এমিয়ান মিরাকল – জাপান+সুপার সেভেন (মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড. ফোর টাইগারস: দক্ষিণ কোরিয়া, তাইওয়ান, সিঙ্গাপুর, হংকং)

পৃথিবী সম্পর্কিত আরো বিস্তারিত তথ্য
উৎপত্তি
সৌরজগৎ সৃষ্টির মোটামুটি ১০০ মিলিয়ন বছর পর একগুচ্ছ সংঘর্ষের ফল হলো পৃথিবী। আজ থেকে ৪.৫৪ বিলিয়ন বছর আগে পৃথিবী নামের গ্রহটি আকৃতি পায়, পায় লৌহের একটি কেন্দ্র এবং একটি বায়ুমন্ডল। সাড়ে ৪০০ কোটি বছর আগে দুটি গ্রহের তীব্র সংঘর্ষ হয়েছিল। সংঘর্ষের তীব্রতা এতটাই বেশি ছিল যে এ সময় জুড়ে যায় গ্রহ দুটি। পৃথিবী নামক গ্রহের সাথে চরম সংঘর্ষ হয়েছিল থিয়া নামে একটি গ্রহের। সংঘর্ষের সময় পৃথিবীর বয়স ছিল ১০ কোটি বছর। সংঘর্ষের জেরে থিয়া ও পৃথিবী জুড়ে যায় তৈরি হয় নতুন গ্রহ। সেই গ্রহটিতেই আমরা বাস করছি। তিনবার চন্দ্র অভিযানে পাওয়া চাঁদের মাটি এবং হাওয়াই অ্যারিজোনায় পাওয়া আগ্নেয়শিলা মিলিয়ে চমকে যান গবেষকরা। দুটি পাথরের অক্সিজেন আইসোটোপে কোনো ফারাক নেই। গবেষক দলের প্রধান অধ্যাপক এডওয়ার্ড ইয়ংয়ের কথায় চাঁদের মাটি আর পৃথিবীর মাটির অক্সিজেন আইসোটোপে কোনও পার্থক্য পাইনি। থিয়া নামক গ্রহটি তখন পরিণত হচ্ছিল। ঠিক সেই সময়েই ধাক্কাটি লাগে এবং পৃথিবীর সৃষ্টি হয়।
সৌরজগতের ভেতরে অবস্থিত পুরনো পদার্থের বয়স প্রায় ৪.৫৬ মত কোটি বছর। আজ থেকে ৪.৫৪ কোটি বছর আগে পৃথিবীর আদিমতম রূপটি গঠিত হয়। সূর্যের পাশাপাশি সৌরজগতের অন্যান্য মহাজাগতিক বস্তুগুলিও গঠিত হয় ও এগুলোর বিবর্তন ঘটতে থাকে। তাত্ত্বিক দৃষ্টিকোণ থেকে, একটি আনবিক মেঘ থেকে একটি সৌর নীহারিকা মহাকর্ষীয় ধসের মাধ্যমে কিছু আয়তন বের করে নেয়, যা ঘুরতে শুরু করে এবং চ্যাপ্টা হয়ে তৈরি হয় পরিনাক্ষত্রিক চাকতিতে, এবং এই চাকতি থেকেই সূর্য এবং অন্যান্য গ্রহের উৎপত্তি ঘটে। একটি নিহারীকাতে বায়বীয় পদার্থ, বরফকণা এবং মহাজাগতিক ধূলি (যার মধ্যে আদিম নিউক্লাইডগুলিও অন্তর্ভুক্ত) থাকে। নীহারিকা তত্ত্ব অনুযায়ী সংযোজন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে অতিক্ষুদ্র গুহগুলি গঠিত হয়। এভাবে আদিম পৃথিবীটি গঠিত হতে প্রায় ১ থেকে ২ কোটি বছর সময় লেগেছিল।
চাঁদের গঠন নিয়ে বর্তমানে গবেষণা চলছে এবং বলা হয় চাঁদ প্রায় ৪.৫৩ বিলিয়ন বছর পূর্বে গঠিত হয়। একটি গবেষণারত অনুমানের তথ্য অনুসারে, মঙ্গল গ্রহ আকারের বস্তু থিয়ার সাথে পৃথিবীর আঘাতের পরে পৃথিবী থেকে খসে পড়া বস্তুর পরিবৃদ্ধির ফলে চাঁদ গঠিত হয়। এই ঘটনা থেকে বলা হয়ে থাকে যে, থিয়া গ্রহের ভর ছিল পৃথিবীর ভরের প্রায় ১০% যা পৃথিবীকে আঘাত করে কৌনিক ভাবে এবং আঘাতের পরে এটির কিছু ভর পৃথিবীর সাথে বিলীন হয়ে যায়। প্রায় ৪.১ থেকে ৩.৫ বিলিয়ন বছরের মধ্যে অজস্র গ্রহাণুর আঘাত যা ঘটে যার ফলে চাঁদের বৃহত্তম পৃষ্ঠতলের ব্যাপক পরিবর্তন ঘটে, আর এর কারণ ছিল পৃথিবীর উপস্থিতি।
    Similar Topics
    TopicsStatisticsLast post
    0 Replies 
    388 Views
    by mousumi
    0 Replies 
    336 Views
    by mousumi
    0 Replies 
    295 Views
    by mousumi
    0 Replies 
    284 Views
    by mousumi
    0 Replies 
    292 Views
    by mousumi

    ICC’র প্রধান প্রসিকিউটর ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২১[…]

    কাগজবিহীন বাণিজ্য চুক্তি কার্যকর এশিয়া ও প্রশান্[…]

    মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের পূর্ণাঙ্গ তাল[…]