Let's Discuss!

বিষয় ভিত্তিক প্রস্তুতি : বাংলদেশ ও বিশ্ব, দৈনন্দিন বিজ্ঞান এবং সাম্প্রতিক ঘটনাবলি
#3446
দ্বিতীয় ভাগ: রাষ্ট্রপরিচালনার মূলনীতি (৮-১৫)
অনুচ্ছেদ-৮: মূলনীতিসমূহ-১। জাতীয়বাদ, সমাজতন্ত্র, গণতন্ত্র, ও ধর্মনিরপেক্ষতা এই নীতিসমূহ এবং তৎসহ এই নীতি সমূহ হইতে উদ্ভত এইভাগে বর্ণিত অন্য সকল নীতি রাষ্ট্র পরিচালনার মূল নীতি বলিয়া পরিগণিত হইবে।
প্রাসঙ্গিক আলোচনা: বাংলাদেশ সংবিধানের পঞ্চম সংশোধনীতে সমাজতন্ত্র এর পরিবর্তে অর্থনৈতিক ও সামাজিক ন্যায়বিচার অর্থে সমাজতন্ত্র নীতিটি গৃহিত হয়েছিল এবং ধর্মনিরপেক্ষতার পরিবর্তে সর্বশক্তিমান আল্লাহ তায়ালার ওপর আস্থা ও বিশ্বাস স্থাপন করা নীতিটি গৃহীত হয়েছিল। পরবর্তীতে ২০০৫ সালের ২৯ আগষ্ট সংবিধানের পঞ্চম সংশোধনীর অবৈধ ও বাতিল ঘোষণা করে রায় দেন হাইকোর্ট বিভাগ। আপিল বিভাগ ২ ফেব্রুয়ারী ২০১০ সালে কিছু পর্যবেক্ষণ দিয়ে হাইকোর্ট বিভাগের ঐ রায় বহাল রাখেন। ফলে বর্তমানে রাষ্ট্র পরিচালনার মূলনীতিগুলো হচ্ছে – ১.জাতীয়তাবাদ, ২.সমাজতন্ত্র, ৩.গণতন্ত্র এবং ৪.ধর্মনিরপেক্ষতা । সংবিধানের ৯,১০ ,১১, ১২ অনুচ্ছেদে রাষ্ট্র পরিচালনার চারটি মূলনীতি ব্যাখা করা হয়েছে।
অনুচ্ছেদ-৯: জাতীয়তাবাদ।
অনুচ্ছেদ-১০: সমাজতন্ত্র ও শোষণমুক্তি।
অনুচ্ছেদ-১১: গণতন্ত্র ও মানবাধিকার।
অনুচ্ছেদ-১২: ধর্মনিরপেক্ষতা ও ধর্মীয় স্বাধীনতা।
অনুচ্ছেদ-১৩: মালিকানার নীতি। বাংলাদেশের মালিকানা নীতি হলো তিনটি- ১.ব্যক্তি মালিকানা ২.সমবায় মালিকানা ও ৩.রাষ্ট্রীয় মালিকানা।
অনুচ্ছেদ-১৪: কৃষক ও শ্রমিক মুক্তি।
অনুচ্ছেদ-১৫: মৌলিক প্রয়োজনের ব্যবস্থা।
অনুচ্ছেদ-১৬: গ্রামীণ উন্নয়ন ও কৃষিবিপ্লব।
অনুচ্ছেদ-১৭: অবৈতনিক ও বাধ্যতামূলক শিক্ষা।
অনুচ্ছেদ-১৮: জনস্বাস্থ্য ও নৈতিকতা।
অনুচ্ছেদ-১৮ (ক): পরিবেশ ও জীববৈচিত্র সংরক্ষণ ও উন্নয়ন।
অনুচ্ছেদ-১৯: সুযোগের সমতা (৩) জাতীয় জীবনে সর্বস্তরে মহিলাদের অংশগ্রহণ ও সুযোগের সমতা রাষ্ট্র নিশ্চিত করিবেন।
অনুচ্ছেদ-২০: অধিকার ও কর্তব্যরূপে কর্ম।
অনুচ্ছেদ-২১: নাগরিকের অধিকার ও সরকারী কর্মচারীদের কর্তব্য।
অনুচ্ছেদ-২২: নির্বাহী বিভাগ হতে বিচার বিভাগ পৃথকীকরণ।
অনুচ্ছেদ-২৩: জাতীয় সংস্কৃতি।
অনুচ্ছেদ-২৩ (ক): উপজাতি, ক্ষুদ্র জাতিসত্তা, নৃগোষ্ঠী ও সম্প্রদায়ের সংস্কৃতি।
অনুচ্ছেদ-২৪: জাতীয় স্মৃতি নিদর্শন প্রভৃতি।
অনুচ্ছেদ-২৫: আন্তর্জাতিক শান্তি, নিরাপত্তা ও সংহতির উন্নয়ন।

শিশু বিষয়ক তথ্য
বাংলাদেশের জাতীয় শিশু নীতি অনুযায়ী শিশুর বয়স – ০ থেকে ১৮
বাংলাদেশে কিশোর অপরাধের বয়সসীমা – ৭-১৬ বছর
বাংলাদেশে কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রের সংখ্যা – ২
বাংলাদেশে কিশোরী উন্নয়ন কেন্দ্রের সংখ্যা -১
জাতীয় কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্র অবস্থিত – টঙ্গী, গাজীপুর
জাতীয় কিশোরী উন্নয়ন কেন্দ্র অবস্থিত – কোনাবাড়ী, গাজীপুর
দ্বিতীয় কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্র অবস্থিত – পুলের হাট, যশোর
    Similar Topics
    TopicsStatisticsLast post
    0 Replies 
    192 Views
    by Rabeyaakther16
    1 Replies 
    76 Views
    by adeel
    0 Replies 
    25 Views
    by badshamgt
    0 Replies 
    162 Views
    by masum
    0 Replies 
    246 Views
    by Rabeyaakther16