Let's Discuss!

বিষয় ভিত্তিক প্রস্তুতি : বাংলদেশ ও বিশ্ব, দৈনন্দিন বিজ্ঞান এবং সাম্প্রতিক ঘটনাবলি
#3416
বাংলাদেশের প্রথম ন্যানো স্যাটেলাইট (উপগ্রহ)
যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় অবস্থিত নাসার কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে ‘স্পেস এক্স ফ্যালকন-৯’ রকেটের মাধ্যমে আর্ন্তজাতিক মহাকাশ স্টেশনের লক্ষ্যে উৎক্ষেপণ করা হয় দেশের প্রথম ন্যানো স্যাটেলাইট ‘ব্র্যাক অন্বেষা’ । ৭ জুলাই ২০১৭ ব্র্যাক অন্বেষা আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশন থেকে কক্ষপথে স্থাপন করা হয়। এ কৃত্রিম উপগ্রহের গ্রাউন্ড কন্ট্রোল স্টেশন বা ভূমি থেকে নিয়ন্ত্রণের স্থান ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়। জাপানের কিউশু ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি থেকে স্যাটেলাইট ‘অন্বেষা’ তৈরি করেন ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন শিক্ষার্থী।
বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট
বাংলাদেশের ১ম স্যাটেলাইট (কৃত্রিম উপগ্রহ) ‘বঙ্গবন্ধু-১’। নানা কারণে বেশ কয়েকবার পেছানোর পর ১১ মে ২০১৮ (শুক্রবার) দিবাগত রাত ২:১৪ মিনিটে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে বঙ্গবন্ধু -১ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করা হয়। এর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ বিশ্বের ৫৭ তম দেশ হিসেবে নিজস্ব স্যাটেলাইটের মালিক হলো। এটি মহাকাশে পাঠানোর কাজ করেছে স্পেসএক্স। তাদের ফ্যালকন-৯ রকেটে করে বঙ্গবন্ধু ১যাত্রা শুরু করে। বঙ্গবন্ধু ১ স্যাটেলাইট পরিচালনার জন্য গঠিত হয়েছে পৃথক একটি কোম্পানি যার নাম বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেড। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলইটের গ্রাউন্ড স্টেশন গাজীপুরের জয়দেবপুর ও রাঙ্গামাটির বেতবুনিয়ায়। মহাকাশে স্যাটেলাইটের অবস্থান হবে ১১৯.১ডিগ্রি পূর্ব দাঘ্রিমাংশে । এটি তৈরিতে মোট খরচ হয়েছে ২,৯৬৭ কোটি টাকা। এটির মূল অবকাঠামো তৈরি করেছে ফ্রান্সের মহাকাশ সংস্থা থ্যালেস অ্যালেনিয়া স্পেস। এতে মোট ট্রান্সপন্ডার ৪০টি । মোট ব্যান্ড উইথ ১৬০০ মেগাহার্জ, ওজন ৩৬০০ কেজি এবং মেয়াদ ১৫ বছর।