Let's Discuss!

বিষয় ভিত্তিক প্রস্তুতি : বাংলদেশ ও বিশ্ব, দৈনন্দিন বিজ্ঞান এবং সাম্প্রতিক ঘটনাবলি
#3345
সৈয়দ নজরুল ইসলাম: সৈয়দ নজরুল ইসলাম ১৯২৫ খ্রিষ্টাব্দে কিশোরগঞ্জ জেলার যমোদল দামপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি মুকিতযুদ্ধের সময় মুজিবনগর সরকারের ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রপতি ছিলেন। স্বাধীনতার পর তিনি ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ সরকারের শিল্পমন্ত্রী ছিলেন। তিনি সংবিধান প্রণয়ণ কমিটির অন্যতম সদস্য ছিলেন।
-তার পুত্র সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সাবেক জনপ্রশাসনমন্ত্রী ।
-তিনি ১৯৪৭ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমএ এবং ১৯৫৩ সালে এলএলবি ডিগ্রি লাভ করেন।
-১৯৫৭ সালে তিনি ময়মনসিংহ জেলা AL এর সভাপতি হন
-১৯৬৪-৭২ পর্যন্ত ALকেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি ছিলেন
-১৯৬৬ সালের ছয় দফা আন্দোলনের সময় বঙ্গবন্ধু গ্রেফতার হলে সেই সংকটাপন্ন সময়ে তিনি ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।
-১৯৭০ সালে নির্বাচনে ময়মনসিংহ ১৭ নির্বাচনি এলাকা থেকে গণপরিষদের সদস্য ও এএল সংসদীয় দলের উপনেতা নির্বাচিত হন।
-১৯৭৩ সালের নির্বাচনে তিনি ময়মনসিংহ ২৮ থেকে নির্বাচিত হন।
-তিনি বাকশালের রাস্ট্রপতি ছিলেন
-তিনি শিল্পকারখানা জাতীয়করণ করেন।
-১৯৪৯ সালে Pakistan Central Superior Service পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে কর বিভাগে অফিসার পদ লাভ করেন। ১৯৫১ সালে ইস্তফা দিয়ে ময়মনসিংহ আনন্দমোহন কলেজ ইতিহাসের অধ্যাপক হিসেবে নিযুক্ত হন।

তাজউদ্দীন আহমেদ: তিনি ১৯২৫ সালে গাজীপুর জেলার কাপাসিয়া থানার দরদরিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি মুজিবনগর সরকারের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন । স্বাধীনতার পর তিনি বঙ্গবন্ধু সরকারের অর্থ ও পরিকল্পনামন্ত্রী ছিলেন। তিনি সংবিধান প্রণয়ণ কমিটির সদস্য ছিলেন। তিনি ছিলেন ভাষা আন্দোলনে সর্বদলীয় সংগ্রাম পরিষদের সদস্য। তার স্ত্রী জোহরা তাজউদ্দীন ১৯৭৭ সালে এএল এর আহ্বায়ক হন। মেয়ে সিমিন হোসেন রিমি, মেহজাবিন মিমি ও শারমিন আহমেদ রিতি , এবং ছেলে সোহেল তাজ। তাজউদ্দীন আহমেদ ১৯৪৪ সালে ম্যাট্রিকুলেশন ,১৯৪৮ সালে আইএ, ১৯৫৩ সালে স্নাতক ডিগ্রি এবং ১৯৬৪ সালে কারাবন্দি অবস্থায় পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে আইনশ্রাস্ত্রে ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৫৪ সালে তিনি কাপাসিয়া থেকে নির্বাচিত হন।

মোহাম্মদ মনসুর আলী
-১৯১৯ সালে সিরাজগঞ্জ জেলার রতনকান্দি ইউনিয়নের কুড়িপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন
-১৯৪১ সালে কলকাতা ইসলামিয়া কলেজ থেকে বিএ পাস করেন
-১৯৪৫ সালে আলীগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে পাস করেন
-১৯৫১ সালে আইন ব্যবসা শুরু করেন পাবনা জেলা আদালতে
-তিনি সবসময় পাবনা-১ আসন থেকে নির্বাচন করেছেন
-১৯৪৮ সালে তিনি যশোর ক্যান্টানমেন্টে প্রশিক্ষণ নেন এবং পিএলজি ক্যাপটেন অধিষ্ঠিত হন। এসময় থেকে তিনি ক্যাপটেন মনসুর নামে পরিচিত।
-তিনি বাকশালের সেক্রেটারি জেনারেল ছিলেন
-ছেলে মোহাম্মদ নাসিম।

আবুল হাসনাত কামারুজ্জামান
-১৯২৬ সালে নাটোরের নূরপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন
-১৯৪৬ সালে প্রেসিডেন্ট কলেজ থেকে অর্থনীতিতে অনার্সসহ স্নাতক পাস করেন
-১৯৭৫ সালে তিনি শিল্পমন্ত্রী হন। মুজিবনগর সরকারের স্বরাষ্ট্র, ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রী ছিলেন
-ছেলে খায়রুজ্জামান লিটন (রাজশাহীর সাবেক মেয়র)
এই মহান চার নেতাকে ১৯৭৫ সালে ৩ নভেম্বর হত্যা করা হয়। [ ২৩ আগস্ট জাতীয় চার নেতা মোশতাকের মন্ত্রিীসভায় যোগদানে অস্বীকৃতি জানালে তাদের গ্রেফতার করে কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি করা হয়]
    Similar Topics
    TopicsStatisticsLast post
    0 Replies 
    105 Views
    by alicu877
    0 Replies 
    118 Views
    by zahangir
    0 Replies 
    103 Views
    by Parvinsultana349
    0 Replies 
    256 Views
    by maynul91
    0 Replies 
    185 Views
    by naser

    ICC’র প্রধান প্রসিকিউটর ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২১[…]

    কাগজবিহীন বাণিজ্য চুক্তি কার্যকর এশিয়া ও প্রশান্[…]

    মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের পূর্ণাঙ্গ তাল[…]